সর্বশেষ :

গোয়া সমুদ্র সৈকত, ভারত

ফের পর্যটকদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত হচ্ছে গোয়া

ট্রাভেলার নিউজ ডেস্ক :

করোনার ধকল কাটিয়ে ফের পর্যটকদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত হচ্ছে গোয়া সমুদ্রসৈকত। খুব শিগগিরই এখানে বেড়াতে যেতে পারবেন পর্যটকরা। আগের মতোই উপভোগ করতে পারবেন সমুদ্রসৈকতের সৌন্দর্য। সেই ব্যবস্থাই করছে ভারতের এই রাজ্য সরকার। গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীর এমন আশ্বাস আশা জাগাচ্ছে সেখানকার মানুষের মনে।

করোনাভাইরাসের দাপটে সমগ্র ভারত কাঁপলেও নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে সফল হয়েছে গোয়া। সেখানে ৭ জন করোনা আক্রান্তের সবাই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাই অর্থনীতিকে চাঙা করতে পর্যটন শিল্পে জোর দিতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত।

গোয়া সমুদ্র সৈকত, ভারত

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনা পরবর্তী পর্যটনের ক্ষেত্রে রাজ্য নিজস্ব গাইড লাইন তৈরি করবে। তবে গোয়া নিরাপদ থাকলেও প্রতিবেশী মহারাষ্ট্র এবং কর্ণাটকের অবস্থা শোচনীয়। যে কারণে গোয়ায় পর্যটন শুরু হলেও অনেক বিধি-নিষেধ থাকবে।’

সূত্র জানায়, নতুন করে পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে যে পদক্ষেপ নেওয়া হবে – তার নকশা তৈরি করছে রাজ্যের পর্যটন দফতর। পর্যটনের মানকে আরও উন্নত করতে চাইছেন তারা। ভ্রমণপিপাসুরা যাতে এখানে এসে বেশি সময় কাটান, বিভিন্ন বিষয়ে অংশ নেন, সেসব দিকে বেশি নজর দেওয়া হবে।

গোয়া সমুদ্র সৈকত, ভারত

পর্যটন দফতর মনে করে, প্রায় সারা বছরই দেশি-বিদেশি পর্যটকরা ভিড় জমান এখানে। পর্যটন শিল্প বন্ধ থাকলে ৭০ হাজার মানুষ চাকরি হারাতে পারেন। তাই দ্রুত ছন্দে ফিরতে চাইছে এ রাজ্য। তবে হয়তো আগের মতো পর্যটকদের ভিড় জমবে না আর। এমনটা মেনেই নিয়েই এগোচ্ছে গোয়া প্রশাসন।

মুখ্যমন্ত্রী আশা করেন, লকডাউনের তৃতীয় দফা শেষ হলে আরও খানিকটা স্বাভাবিক হবে জনজীবন। তখনই ধীরে ধীরে পর্যটনের দিকে ঝুঁকবে রাজ্য। তবে সে ক্ষেত্রেও অনেক নিয়ম-কানুন মানতে হবে। বিশেষ করে গোয়ার ক্ষেত্রে। কারণ এ রাজ্য পুরোটাই গ্রিন জোন। কোনো কোভিড কেস নেই এখানে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *