সর্বশেষ :

ছবি : রাতারগুল

এখন থেকে রাতারগুল ভ্রমণে ও ভিডিও ধারণে গুনতে হবে মাশুল

সিলেট প্রতিনিধি:

এখন থেকে দেশের একমাত্র মিঠাপানির জলাবন এবং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য রাতারগুল এলাকায় প্রবেশ, ভিডিও ধারণ ও নৌ ভ্রমণের ক্ষেত্রে ফি দিতে হবে সরকারকে। ফি নির্ধারণ করে সম্প্রতি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়।

প্রজ্ঞাপন বলা হয়েছে, রাতারগুল বিশেষ জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে প্রাপ্ত বয়স্কদের প্রবেশ ফি ৫০ টাকা, অপ্রাপ্তবয়স্ক অর্থাৎ যাদের বয়স ১২ বছরের নিচে তাদের ফি ২৫ টাকা। পরিচয়পত্র ধারী ছাত্র-ছাত্রীদের প্রবেশ ফি ২৫ টাকা এবং বিদেশি নাগরিকদের জন্য প্রবেশ ফি ৫০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া শুটিং ভিডিওর জন্য প্রতিদিনের ‘ফিল্মিং ফি’ দিতে হবে ১০ হাজার টাকা।

ছবি : রাতারগুল

এছাড়া প্রতিবার নৌকা (ইঞ্জিনবিহীন) ভ্রমণের জন্য দেশি দর্শনার্থীদের গুনতে হবে ১০০ টাকা আর বিদেশিদের এক হাজার টাকা।

বাস বা ট্রাকের প্রতিবারের পার্কিং ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ২০০ টাকা। পিকআপ / জিপ / কার / মাইক্রোবাস’র পার্কিং ফি ১০০ টাকা এবং সিএনজি / মোটরসাইকেল’র পার্কিং ফি ২৫ টাকা।

সিলেটের গোয়াইনঘাটে অবস্থিত রাতারগুল সোয়াম্প ফরেস্ট বাংলাদেশের একমাত্র মিঠাপানির জলাবন ও বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য। ১৯৭৩ সালে এথানকার ৫০৪ একর বনকে বন্যপ্রাণীর অভয়ারণ্য হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এই বনকে বাংলাদেশ সরকারের বনবিভাগের অধীনে সংরক্ষণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *