সর্বশেষ :
অবাধ্য পর্যটক ঠেকাতে মাউন্ট ফুজিতে দেয়াল তুললো জাপানপর্যটন সূচকে দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে পিছিয়ে বাংলাদেশ – ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামদুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কবলে পড়ে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের এক যাত্রীর মৃত্যুঅবশেষে কক্সবাজার ফিরছেন সেন্টমার্টিনে আটকাপড়া পর্যটকরাবিদেশি পর্যটকদের ক্যাসিনোসহ বিনোদন নিশ্চিতের সুপারিশপর্যটকদের বিস্ময় শমশেরনগরের ক্যামেলিয়া লেকপদ্মাসেতুকে ঘিরে পর্যটন খাতে নেওয়া হয়েছে নানা কর্মসূচিপর্যটন ভবনের ছাদে রুফটপ রেস্টুরেন্ট উদ্বোধন করলেন পর্যটন প্রতিমন্ত্রীসেন্টমার্টিন ভ্রমণে নতুন বিধি-নিষেধ আরোপনতুন বিমান ‘ধ্রুবতারা’র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ক্যামেলিয়া লেক, শমশেরনগর

পর্যটকদের বিস্ময় শমশেরনগরের ক্যামেলিয়া লেক

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :

চারদিক নৈশব্দে মুখরিত চা-বাগানের উঁচুনিচু বেশ কয়েকটি টিলায় চায়ের নরম গালিচা। মাথার ওপরে নীল আকাশ। আকাশের সাদা মেঘের ভেলা। তার প্রতিচ্ছবি ফুটে উঠেছে
স্ফটিক স্বচ্ছ লেকের পানিতে। বিস্তীর্ণ লেক জুড়ে ঝাঁক বেঁধে ঘুরে বেড়াচ্ছে পরিযায়ী পাখির দল। চারিদিকে যতদূর চোখ যায়, ছোট-বড় অসংখ্য পাহাড়ি টিলায় ঘন সবুজে মোড়ানো চা-বাগান। এরই মধ্যে টলটলে স্বচ্ছ পানির অপরূপ ক্যামেলিয়া লেক। চা-বাগানের শ্রমিকদের কাছে যা ‘বিসলার বান’ নামে সুপরিচিত।

ক্যামেলিয়া লেক, শমশেরনগর

মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জের শমশেরনগরে অবস্থিত ব্রিটিশ কোম্পানি ডানকান ব্রাদার্সের মালিকানাধীন শমশেরনগর চা-বাগানের অভ্যন্তরে দৃষ্টিনন্দন এ লেকের অবস্থান। এই চা বাগাটির আয়তন প্রায় ৪,৩২৬ দশমিক ৪৭ একর। শুষ্ক মৌসুমে ছাঁটাই করা চা-গাছে পানি সেচের জন্য সাধারণত চা-বাগানের মধ্যে ছোট-বড় লেক দেখতে পাওয়া যায়। আঁকাবাঁকা মেঠো পথ ধরে লেকের কাছে যেতে যেতে গাছে গাছে ঝুলে থাকা বানরক‚লের দেখা মিলবে।
শমশেরনগর-চাতলাপুর চেকপোস্ট সড়ক ধরে দক্ষিণে তিন কিলোমিটার সামনে এগোলেই চোখে পড়বে ক্যামেলিয়া ডানকান ফাউন্ডেশন হাসপাতাল। ডানকান ব্রাদার্সের ১৫টি চা-বাগানের শ্রমিক ও শ্রমিক পরিবারের সদস্য, কর্মচারী ও ব্যবস্থাপকদের চিকিৎসাসেবা দানে ১৯৯৪ সালে হাসপাতালটি নির্মাণ করা হয়। ডানকান ব্রাদার্সের মূল কোম্পানি ক্যামেলিয়া পিএলসির নামানুসারে এর নামকরণ করা হয়েছে।

পাখির চোখে ক্যামেলিয়া লেক

হাসপাতালটিকে পেছনে রেখে আরও দুই কিলোমিটার চায়ের গালিচার মধ্য দিয়ে মাটির রাস্তা ধরে এগোলেই চোখের সামনে ভেসে উঠবে দৃষ্টিনন্দন ক্যামেলিয়া লেক। এ লেকের অনেকগুলো শাখাও রয়েছে। লেকের দুই পাশজুড়ে অনেক গাছগাছালি। দর্শ লেকের সৌন্দর্য উপভোগ করতে দর্শণার্থীদের জন্য পানির ওপর নির্মাণ করা হয়েছে একটি ডেক। যেখানে দাঁড়িয়ে সৌন্দর্য পিপাসুর দল মনভরে লেকের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারে।

ক্যামেলিয়া লেক, শমশেরনগর

কিছুটা দূর্গম এলাকায় অবস্থিত হলেও নান্দনিক সৌন্দর্যের কারণে ক্যামেলিয়া লেকটি এখন সবার কাছে সুপরিচিত। সবুজ প্রকৃতির ভিতর দিয়ে এখানে যাওয়ার পথটাও বেশ রোমাঞ্চকর। ভ্রমণপিপাসুর দল নির্ভয়ে সেখানে যাতায়াত করতে পারেন। প্রকৃতির অবারিত আঙিনায় খোলামেলা এ লেকের স্ফটিক স্বচ্ছ পানিতে গোসল করা, সাঁতার কাটা, লেকের পাশে পাহাড়ে ওঠার আনন্দ উপভোগ করতে পারবেন আপনি। ছবি তোলার জন্যও এখানকার ক্যানভাসের কোন তুলনা হয় না। পর্যটকদের ভ্রমণ আরো বেশি আনন্দময় হতো, যদি লেকের স্বচ্ছ পানিতে ভেসে বেড়ানোর জন্য বোটিংয়ের ব্যবস্থা থাকতো। ফেরার পথে দেখা মিলবে শমশেরনগরের মনোমুগ্ধকর গলফ মাঠ। চাইলে এখানে কিছুটা সময় বিশ্রাম নিয়ে আনন্দ উপভোগ করতে পারবেন ভ্রমণপিয়াসীরা। এখানে বসে সঙ্গে করে আনা খাবার খেলে আপনার ভ্রমণের আনন্দে যোগ হবে নতুন মাত্রা।

ক্যামেলিয়া লেক, শমশেরনগর

শমশেরনগর চা-বাগান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, লেক ও গলফ মাঠের সৌন্দর্য রক্ষার স্বার্থে সহজে কাউকে, বিশেষ করে পর্যটকদের বড় দলকে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না এখানে। তবে আগাম যোগাযোগ করে কিছু শর্তাবলি মেনে চলার শর্তে পর্যটকদের ছোট ছোট দলকে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয় ক্যামেলিয়া লেকে।

কিভাবে যাবেন দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে বাস বা ট্রেনে শমশেরনগর আসা যায়। এখানে পৌঁছে শমশেরনগর বাজার থেকে রিকশা, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, প্রাইভেট কার কিংবা মাইক্রোবাস নিয়ে সহজেই ক্যামেলিয়া লেকে পৌঁছানো যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *